বৃহঃ. ফেব্রু ২২, ২০২৪

 

 

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধ কেটে ভারী বর্ষণে আটকে থাকা পানি অপসারণ শুরু করেছে উপজেলা প্রশাসন। মঙ্গলবার  দুপুরে উপজেলার রাজৈর গ্রামের কালিয়ারখাল এলাকায় এস্কেভেটর মেশিন দিয়ে বেড়িবাঁধের মাটি কেটে এই পানি নামানোর কাজ শুরু হয়। এসময় শরণখোলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রায়হান উদ্দিন শান্ত, উপজেলা নির্বাহী অফিসার খাতুনে জান্নাতসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন। বেরিবাঁদ কেটে পানি নিস্কাসন করায় আনন্দ প্রকাশ করেছেন পানিবন্দি মানুষেরা।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার খাতুনে জান্নাত বলেন, সাম্প্রতিক ভারী বৃষ্টিপাতে উপজেলায় প্রায় ৫৫ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়ে। বৃষ্টির পানিতে সৃষ্ঠ জলাবদ্ধতায় ফসলের মাঠসহ এলাকাবাসীর ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধে পর্যাপ্ত স্লুইজ গেট না থাকায় বৃষ্টির পানি ঠিক মত নামতে পারছিল না। যার ফরে স্থানীয় জন প্রতিনিধি এবং উপকূলীয় বাধ উন্নয়ন প্রকল্পের (সিইআইপি-১) প্রকল্পের কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে আমরা বাঁধ কেটে পানি অপসারনের ব্যবস্থা করেছি। পরবর্তীতে এই বাঁধে প্রয়োজনীয় সংখ্যক স্লুইজ গেট নির্মানের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন তিনি। মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) দুপুর থেকে ভারি বর্ষণে বাগেরহাটের বেশিরভাগ উপজেলায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এর মধ্যে সব থেকে বেশি জলাবদ্ধতা হয় শরণখোলায়। বেড়িবাধে পর্যাপ্ত স্লুইজ গেটের অভাবে পানি নামতে না পাড়ায় এই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। পরে স্থানীয়রা বাধ কেটে পানি নামানোর উদ্যোগ নিলে উপজেলা প্রশাসন বাধ কেটে জলাবদ্ধতা নিরসনের ব্যবস্থা করে।

 

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *