সাগর কন্যা খ্যাত কুয়াকাটায় পর্যটকদের বরণে সাজ সাজ রব

USB ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২২
এম, নিয়াজ মোর্শেদ পটুয়াখালী :
বছরের শেষ সূর্যাস্ত উপভোগ করতে কুয়াকাটায় প্রতিবারই আগমন ঘটে হাজারো পর্যটকের। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে পরিবার, পরিজনের সঙ্গে আনন্দ উল্লাসে সময় কাটাতে এখানে ভিড় জমান পর্যটকরা। তাই আগে থেকেই হোটেল বুকিং দিয়ে রেখেছেন অনেক পর্যটক।
এদিকে আগত পর্যটকদের বাড়তি বিনোদন দিতে নতুন রূপে সেজেছে সাগর কন্যা খ্যাত এই ভ্রমণ স্পটটি।
শনিবার  (৩১ ডিসেম্বর) সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্ট ঘুরে দেখা যায়, হোটেল-মোটেল, রেস্তোরাঁ, বিনোদন স্পটসহ বিভিন্ন স্থান রঙিন লাইট, বেলুন দিয়ে সাজানো হয়েছে। এছাড়া নতুনকে স্বাগত জানাতে বেশিরভাগ হোটেল ধোয়া-মোছা করে পরিপাটি করে রাখা হয়েছে।
হোটেল-মোটেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, থার্টি ফার্স্ট নাইট ও সাপ্তাহিক ছুটি উপলক্ষে এরই মধ্যে প্রথম শ্রেণির হোটেল শতভাগ বুকিং হয়েছে। তবে দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণির হোটেল গুলোতে কিছু রুম খালি রয়েছে। এ উপলক্ষে কুয়াকাটায় পর্যটকদের আগমনটা স্বাভাবিকের চেয়ে বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
হোটেল খান প্যালেসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাসেল খান বলেন,বড় দিনের পর থেকে থার্টি ফার্স্ট নাইটের বন্ধ পর্যন্ত আমাদের সব রুম বুকড রয়েছে। আমরা আলোক সজ্জা, ইনডোরে কনসার্ট, বারবিকিউ পার্টিসহ বিভিন্ন আয়োজন রেখেছি।
ট্যুর অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব কুয়াকাটার (টোয়াক) প্রেসিডেন্ট রুমান ইমতিয়াজ তুষার জানান, বছরে যতগুলো বন্ধে কুয়াকাটায় পর্যটকে টইটুম্বুর থাকে তার মধ্যে থার্টি ফার্স্ট নাইট অন্যতম। তাই এ বন্ধকে কেন্দ্র করে আমাদের অনেক আয়োজন থাকে। তবে সরকারি অনেক বিধিনিষেধ থাকায় আমরা বেশিরভাগ হোটেল মালিক ইনডোরে ছোট ছোট প্রোগ্রাম করে পর্যটকদের বিনোদন দেওয়ার চেষ্টা করি। পর্যটকদের আকর্ষণের জন্য হোটেলে সাজসজ্জা, নতুনত্ব, বিশেষ ছাড়সহ বিভিন্ন আয়োজন হাতে নেওয়া হয়।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোন সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুল খালেক বলেন, ডিসেম্বরজুড়ে পর্যটকদের চাপ। তাই সার্বিকভাবে আমরা তৎপর রয়েছি। আমাদের গোয়েন্দা সংস্থাও কাজ করছে। যাতে পর্যটকরা কোনো হয়রানির স্বীকার না হন। #

সাগর কন্যা খ্যাত কুয়াকাটায় পর্যটকদের বরণে সাজ সাজ রব,

বছরের শেষ সূর্যাস্ত উপভোগ করতে কুয়াকাটায় প্রতিবারই আগমন ঘটে হাজারো পর্যটকের। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে পরিবার, পরিজনের সঙ্গে আনন্দ উল্লাসে সময় কাটাতে এখানে ভিড় জমান পর্যটকরা। তাই আগে থেকেই হোটেল বুকিং দিয়ে রেখেছেন অনেক পর্যটক।,

সাগর কন্যা খ্যাত কুয়াকাটায় পর্যটকদের বরণে সাজ সাজ রব,

বছরের শেষ সূর্যাস্ত উপভোগ করতে কুয়াকাটায় প্রতিবারই আগমন ঘটে হাজারো পর্যটকের। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে পরিবার, পরিজনের সঙ্গে আনন্দ উল্লাসে সময় কাটাতে এখানে ভিড় জমান পর্যটকরা। তাই আগে থেকেই হোটেল বুকিং দিয়ে রেখেছেন অনেক পর্যটক।,

সাগর কন্যা খ্যাত কুয়াকাটায় পর্যটকদের বরণে সাজ সাজ রব,

বছরের শেষ সূর্যাস্ত উপভোগ করতে কুয়াকাটায় প্রতিবারই আগমন ঘটে হাজারো পর্যটকের। নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে পরিবার, পরিজনের সঙ্গে আনন্দ উল্লাসে সময় কাটাতে এখানে ভিড় জমান পর্যটকরা। তাই আগে থেকেই হোটেল বুকিং দিয়ে রেখেছেন অনেক পর্যটক।,এম, নিয়াজ মোর্শেদ পটুয়াখালী :

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ

সকল নিউজ সবার আগে পেতে লাইক দিন-

জনপ্রিয় পত্রিকাসমূহ