সোম. জুন ১৭, ২০২৪

 

মাসুম হাওলাদারঃ

মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে এসব ঘর ও জমি দেওয়া হয়,

সারাদেশের সাথে একযোগে বাগেরহাটেও ভূমিহীনদের জন্য নির্মিত ৩শ ৩৮টি ঘর উদ্বোদ্ধন করেছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি এই ঘরের উদ্বোধন করেন।পরে বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদ চত্বরে এই উপজেলার ৫২ জন ভূমিহীনের হাতে ঘরের চাবি, জমির দলিল ও সনদপত্র তুলে দেন বাগেরহাট জেলা প্রশাসক আনম ফয়জুল হক।এসময়, বাগেরহাট জেলা  পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়, বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. ভুইয়া হেমায়েত উদ্দিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোঃ শাহিনুজ্জামান, বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন,সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মাদ মুছাব্বেরুল ইসলাম, বাগেরহাট সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক এমএ মতিন, বাগেরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কেএম আজিজুল ইসলাম, বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান রেজাউল ইসলাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রিজিয়া পারভীন, ডেমা ইউনিয়ণ পরিষদের চেয়ারম্যান মনি মল্লিক,বেমতা ইউনিয়ণ পরিষদের চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেন টগর,  খানপুর ইউনিয়ণ পরিষদের চেয়ারম্যান ফকির ফহম উদ্দিন ,কাড়াপাড়া ইউপি চেয়াম্যান বশিরুল ইসলামসহ উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও উপকারভোগীরা উপস্থিত ছিলেন,স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, জেলা-উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তা, প্রিন্ট-ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকসহ সকল শ্রেনী-পেশার প্রতিনিধিত্বশীল ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। “আশ্রয়নের অধিকার-শেখ হাসিনার উপহার” এই স্লোগান নিয়ে আশ্র্রয়ন-২ প্রকল্পের আওতায় বাগেরহাট জেলার ৯টি উপজেলায় ৪‘শ ৩৩টি ঘর নির্মান করা হচ্ছে। এর মধ্যে বাগেরহাট সদর উপজেলায় ৫২, কচুয়ায় ৩০, চিতলমারী ১৭, মোল্লাহাটে ৩৫, ফকিরহাটে ৩০, রামপালে ১০, মোংলায় ৫০, মোরেলগঞ্জে ৬ এবং শরণখোলা উপজেলায় ১‘শ৯৭টি ঘর নির্মান করা হচ্ছে। এর মধ্যে ৩‘শ ৩৮ টি ঘর নির্মান সম্পন্ন হয়েছে। অবশিষ্ট ঘর গুলো খুব অল্প সময়ের মধ্যে নির্মান শেষ হবে।#

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *