বৃহঃ. ফেব্রু ২২, ২০২৪

 

প্রতিনিধি শরণখোলা
বৈরী আবহাওয়ার কারনে নদী ও সাগরে জাল ফেলতে পারছেন বাগেরহাটর শরণখোলা উপজেলায়র অর্ধলক্ষাধিক জেলে। সমুদ্র উত্তাল থাকায় তারা জাল ট্রলার নিয়ে আশ্রয় নিয়েছে বঙ্গোপ সাগর তীরবর্তী সুন্দর বনে। বাকিরা লোকালয়ের নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিয়েছে। প্রায় ১৫ দিন যাবৎ ইলিশ জেলেরা সাগরে জাল ফেলতে না পেরে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।ফলে দরিদ্র জেলে পরিবারে দেখা দিয়েছে খাদ্য সংকট। ওদিকে আরৎদার ও ট্রলার মালিকরা লক্ষ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করে এখন বেকার বসে আছেন। করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার পর জেলেরা ৬৫ দিনের অবরোধের মুখে পরে। পরে দেখা দেয় ঘূর্নীঝড় আম্পান এখন আবার লঘু চাপের সৃষ্টি হওয়ায় সাগর রয়েছে উত্তাল। দীর্ঘদিন ধরে সমুদ্রে জাল ফেলতে পারছেনা জেলেরা। মৎস্য আরৎদার জামাল হোসেন জানান, এখন ইলিশের ভরা মৌসুম অথচ এখনই তারা মাছ ধরতে পারছেন না। পরে আর এ ক্ষতি পুষিয়ে উঠা সম্ভব হবেনা। ব্যবসায়ী ও জেলেরা এ বছর ব্যাপক লোকশানের মুখে পড়ার আশংকা করছেন ।
পুর্বসুন্দর বনের শরনখোলা রেঞ্জ কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন জানান, সমুদ্রে ঝড় হলে জেলেরা সাধারনত বনের খালে আশ্রয় নিয়ে থাকেন। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বিনয় কৃষ্ঞ জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারনে জেলেরা সাগরে জাল ফেলতে না পেরে ক্ষতি গ্রস্থ হচ্ছে। আবহাওয়া ঠিক হলে তারা সাগরে জাল ফেলবে। তবে সাগরে মাছ কম পড়ে এটা ঠিক নয়। আবহাওয়ার কারনে মাছ গতি বা দিক পরিবর্তন করে থাকে।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *