শনি. মে ১৮, ২০২৪

বাাগেরহাট

বাগেরহাটে সদরে গবাদিপশুর বিপুল পরিমাণ নকল ওষুধ জব্দ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

নকল ওষুধ প্রক্রিয়াজাতকরণ ও সংরক্ষণে রাখার অপরাধে গোবিন্দ চক্রবর্ত্তী নামে এক ব‌্যক্তিকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। একই সাথে বাগেরহাট শহরের দশানীতে সাবেক কচুয়া পট্টীতে অবস্থিত নকল ওষুধ তৈরির কারখানাটিকে সিলগালা করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে বাগেরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলাম ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক হিসেবে এ আদেশ দেন।
এসময় বাগেরহাট ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের ড্রাগ সুপারভাইজার এমডি মেহেদী আফজাল পল্লব উপস্থিত ছিলেন।
দণ্ডপ্রাপ্ত গোবিন্দ চক্রবর্ত্তী বাগেরহাট শহরের সুরেশ চক্রবর্ত্তীর ছেলে এবং টিএস এ্যাগ্রোভেট নামক গবাদিপশুর ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের প্রোপাইটর।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও বাগেরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলাম বলেন, ‘‘টিএস এ্যাগ্রোভেট নাম দিয়ে কতিপয় লোক গবাদিপশুর জন্য নকল ওষুধ তৈরি করছিলেন। গণমাধ্যম কর্মীদের মাধ্যমে এমন খবর পাই। সরেজমিনে এসে বিষয়টির সত্যতা পেয়েছি। গোবিন্দ চক্রবর্ত্তী এখানে যে ব্যবসা পরিচালনা করছেন, তার কোনো লাইসেন্স নেই। প্রতিষ্ঠানের সামনে কোনো সাইনবোর্ডও দেওয়া ছিল না।
‘তিনি তার ব্যবসার বিষয়ে কোনো বৈধ কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। এজন‌্য ১৯৪০ সালের ড্রাগ আইনের ১৮(১২) ধারায় তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তার প্রতিষ্ঠানে পাওয়া ১৩ ধরনের বিপুল পরিমাণ নকল ওষুধ জব্দ করা হয়েছে।”

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *