সোম. মার্চ ৪, ২০২৪

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ

বাগেরহাটে বিবাদমান জমির দখল নিতে প্রতিপক্ষের বসত ঘর ভাংচুর করে উচ্ছেদ ও লুট পাট করেছে প্রতিপক্ষ নাজমুল গাজীসহ অন্যরা।বাগেরহাট সদর উপজেলার ডেমা গ্রামের অসহায় ওই পরিবারটি দুইদিন ধরে অন্যের বাড়িতে দিনাতিপাত করছেন।
নির্যাতিত ওই পরিবারের সদস্য মাহবুব গাজী বলেন, আমার মা রাবেয়া বেগমের পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত ৬০ শতক জমিতে ঘরবাড়ি তৈরি করে আমরা দীর্ঘদিন বসবাস করে আসছি। হঠাৎ করে আমাদেরে প্রতিবেশী আশ্বাস গাজী ও তার ছেলেরা আমাদের ওই জমি দাবি করেন।আমাদের হুমকী ধামকি দিতে থাকেন। এক পর্যায়ে আমরা নিজের বাড়ি-ঘর রক্ষা করতে আদালতে মামলা করি। কিন্তু মামলা চলমান অবস্থায় আশ্বাস গাজী, আশ্বাস গাজীর ছেলে নাজমুল গাজী, তাদের নিকট আত্মীয় সরোয়ার গাজী, আল আমিন গাজী, জাফর মল্লিক, আরিফ গাজী, রুবেল তরফদারসহ ২৫-২৬ জন লোক এসে শনিবার ভোরে আমাদের বসত ঘর ভাংচুর করে।আমাদের ঘরের উপর থেকে আমাদের চালের টিন, কাঠের বেড়া, খুটি সব কিছু ফেলে দেয়। ঘরে থাকা কাঠের আলমারি, টেবিল, চেয়ারসহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। যার আনুমানিক মূল্য দুই লক্ষ টাকা।এছাড়া মাছ বিক্রি করে ঘরে রাখা নগদ ৬৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায় তারা। বিষয়টি থানা পুলিশ বা স্থানীয় গন্যমান্য বক্তিকে জানালে জানে মেরে ফেলারও হুমকী দেয়।
মাহবুব গাজী আরও বলেণ, আমরা এলাকার গন্য মান্য ব্যক্তিদের কাছে গেলে তারা এ বিষয়ে কোন কথা বলতে রাজি হননি। থানায় গেলে পুলিশ আমাদেরকে আদালতে মামলা দায়েরের জন্য বলেন।
মাহবুবের বৃদ্ধ মা রাবেয়া বেগম বলেন, বাবা কাদের শেখের একমাত্র সন্তান আমি।মাত্র ৬ মাস বয়সে আমার বাবা মারা যায়। ছোট থাকায় আমার চাচা ও চাচাতো ভাই-বোনরা বাবার অনেক জমি বিভিন্নভাবে দখল করে নেন। পরবর্তীতে বড় হলে বাবার মাত্র ৬০ শতাংশ জমিতে আমি ঘরবাড়ি তৈরি করে থাকা শুরু করি। পরবর্তীতে প্রায় ৫০ বছর আমার স্বামী সন্তান নিয়ে এই জমিতে বসবাস করে আসছি। কিন্তু কিছুদিন ধরে আশ্বাস গাজী ও তার সন্তানরা আমাদেরকে এখান থেকে উচ্ছেদ করার পায়তারা শুরু করেছেন। এর অংশ হিসেবে শনিবার আমাদের সবাইকে মারধর করে তারা। আমাদের ঘর বাড়ি ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়। জোর করে ঘরের পাশ থেকে গুনার বেড়া দিয়ে দেয়। এখন আমরা আমাদের ঘরেও থাকতে পারছি না। আমরা এর সুষ্ঠ বিচার চাই। বৃদ্ধ বয়সে সন্তান-সন্ততী নিয়ে শান্তিতে বসবাসের নিশ্চয়তা চাই।
বাগেরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Related Post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *