অশনি মোকাবেলায় বাগেরহাটে প্রশাসন ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ

উত্তাল সংবাদ ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ১০ মে, ২০২২
  • ১৪

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় অশনি মোকাবেলায় বাগেরহাটের প্রশাসন ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। জেলেরা নিরাপদ আশ্রয়ে ফিরতে শুরু করেছে। দুর্যোগের সময় যাতে নদী তীরবর্তি এলাকার মানুষ নিরাপদে আশ্রয় নিতে পারে সে জন্য ২৩৪টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্রের পাশাপাশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও খোলা রাখা হবে। অপরদিকে, মোংলা বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে বন্দরে অবস্থান নেয়া জাহাজে পন্য ওঠা নামার কাজ চলমান রয়েছে। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার মোঃ ফকর উদ্দিন জানান, মোংলা বন্দরে বর্তমানে দেশি বিদেশি ৪টি জাহাজ অবস্থান করছে। জাহাজে পন্য ওঠানামার কাজ চলছে। ঝড়ের সিগনাল বৃদ্ধি না হলে বন্দরের সব কাজ স্বাভাবিক নিয়মে চলবে। এছাড়া মোংলার কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীর ছোট বড় জাহাজ গুলোকে বন্দরের অভ্যন্তরে রাখা হয়েছে। বাগেরহাট জেলা মৎস্যজীবী সমিতির সভাপতি শেখ ইদ্রিস আলী জানান, ঘুর্ণিঝড় অশনির পূর্বভাস পেয়ে জেলেরা কুলে ফিরেছে। আর যারা এখন ফিরতে পারেনি তারা পাশের নদী খালে নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছে। জেলেরা আগের থেকে এখন অনেক সচেতন। তবে এই জেলেরা যখন গভীর সমুদ্রে থাকে তখন হঠাৎ কোন দুর্যোগ আসলে তারা কোন খবর পায় না। সম্প্রতি কালবৈশাখি ঝড়ের কবলে পড়ে ১০ জন জেলের মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান বলেন, আবহাওয়া বিভাগ প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঘূর্ণিঝড় অশনি’র পূর্বাভাস জারির পর তা মোকাবেলায় প্রশাসন প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। দুর্যোগ মোকাবেলায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির এক জরুরী সভা করা হয়েছে। জেলা ও উপজেলাগুলোতে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। দুর্যোগের সময় যাতে স্থানীয় লোকজন আশ্রয় নিতে পারে সে জন্য জেলার ২৩৪ টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।বাগেরহাটের কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপ পরিচালক আজিজুর রহমান বলেন, চলতি বোরো মৌসুমে বাগেরহাট জেলায় ৫৯ হাজার ২ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ করা হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের ৪টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার, ৯৭টি রিপার দিয়ে জমি মালিকদের ধান কেটে দিতে সহযোগিতা করা হয়েছে। বাগেরহাট জেলার ইতোমধ্যে ৯০ ভাগ জমির পাকা ধান কেটে ঘরে তুলেছে কৃষক। দুর্যোগে ক্ষতি হতে পারে তেমন কোন ফসল বর্তমানে মাঠে নেই। আর যা আছে তা রক্ষা করতে স্ব স্ব উপজেলা কৃষি কর্মকর্তারা চাষীদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। #az

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ

সকল নিউজ সবার আগে পেতে লাইক দিন-

জনপ্রিয় পত্রিকাসমূহ