শিরোনামঃ

কোচিং সেন্টার থেকে ছাত্রীকে জোর করে তুলে নেয়ার চেষ্টা,বখাটে আটক

USB ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত রবিবার, ২০ নভেম্বর, ২০২২

প্রতিনিধি বাগেরহাট ।

কোচিং সেন্টার থেকে পঞ্চম শ্রেনীর ছাত্রীকে জোর করে তুলে নেয়ার চেষ্টা, জনতার সহায়তায় বখাটে আটক
বাগেরহাট সদর উপজেলার গোটাপাড়া স্কুলের সামনের একটি কোচিং সেন্টার থেকে পঞ্চম শ্রেনীর একজন ছাত্রীকে জোর করে তুলে নেয়ার চেষ্টাকালে জনতার সহায়তায় জনি শেখ (২০) নামের এক বখাটেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় শনিবার রাতেই মেয়েটির পিতা বাদী হয়ে বাগেরহাট সদর মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেছেন। গ্রেফতার জনি সেখ গোটাপাড়া গ্রামের জেনাব আলী সেখের ছেলে। পুলিশ রবিবার সকালে স্বভাব বখাটে জনি শেখ কে আদালতে প্রেরন করেছে। ঘটনা বিষয়ে প্রর্ত্যক্ষদর্শীরা জানায়, জনি সেখ শনিবার বিকেলে গোটাপাড়া স্কুলের সামনে একটি কোচিং সেন্টারে প্রবেশ করে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওই মেয়েটিকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যেতে চেষ্টা করে। এ সময় কোচিং সেন্টারের শিক্ষক সুমন তা প্রতিরোধ করে। দ্বিতীয় দফায় সে আবারও কোচিং সেন্টারের সামনে অবস্থান নিয়ে অশালিন ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। এক পর্যায়ে স্থানীয়রা জনি সেখ কে আটক করে উত্তম-মাধ্যম দিয়ে বেধে রাখে। পরে এলাকার ইউপি মেম্বর টুটুল কাজী এসে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বাগেরহাট সদর মডেল থানা পুলিশ জানায়। পরে থানা পুলিশ জনি শেখ কে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। এলাকাবাসীরা অভিযোগ করে বলেন জনি সেখ নিয়মিত মাদক সেবন করে তার বখাটে সহযোগিদের নিয়ে প্রায়ই স্কুলগামি মেয়েদের উত্তাক্ত করে আসছে। হিন্দু সম্প্রদায় অধ্যুষিত ওই এলাকার অনেকে ভয়ে এ চিহ্নিত বখাটেদের কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করেন না। এসব বখাটেদের কারনে গোটাপাড়া স্কুলের অনেক শিক্ষার্থী লেখা-পড়া বন্ধ হয়ে গেছে বলে একাধিক ব্যাক্তি মন্তব্য করেছেন। এ বিষয়ে বাগেরহাট সদর মডেল থানার দায়িত্ব প্রাপ্ত ওসি মোঃ মহসিন রবিবার সকালে জানান, কোচিং সেন্টারে মেয়েকে উত্তাক্তের ঘটনায় এলাকাবাসীর সহায়তায় জনি সেখ নামের এক বখাটেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে শনিবার রাতেই একটি মামলা করেছেন।#az

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ

সকল নিউজ সবার আগে পেতে লাইক দিন-

জনপ্রিয় পত্রিকাসমূহ